নারায়ণগঞ্জ জেলার সেহরির শেষ সময় ২০২৩

রমজান মাস প্রতিটি মুসলমানের কাছে এক খুশির বার্তা নিয়ে আসে। কারণ এই মাসটিতে কেন্দ্র মুসলমানরা নানান ধরনের ইবাদত করার সুযোগ পেয়ে থাকেন। আর সেই ইবাদত গুলোর মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ ও উত্তম ইবাদত হল রমজান মাসের রোজা পালন করা। এই মাসের রোজা পালন করার জন্য মুসলমানরা সারা বছর অপেক্ষা করে থাকেন। কারণ এই মাসের রোজার গুরুত্ব এতটাই মহান আল্লাহতালা এই মাসের রোজার প্রতিদান তিনি নিজে তার বান্দাদের হাতে তুলে দিবেন।

তাই আমরা যারা নারায়ণগঞ্জ জেলায় স্থায়ীভাবে বসবাস করি। এবং যে সকল মুসলমান ভাই ও বোনেরা অন্য জেলা থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলায় কর্মজীবনের কারণে বসবাস করছি। তারা রমজানের রোজা করার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করছেন তারা অনেকেই জানতে আগ্রহী নারায়ণগঞ্জ জেলার ২০২৩ সালের সেহরির শেষ সময় সম্পর্কে। তাছাড়া এ বিষয় টি জানতে আপনারা ইন্টারনেটের অনেক জায়গায় অনুসন্ধান করছেন। আপনি যদি নারায়ণগঞ্জ জেলায় বসবাস করে থাকেন তাহলে আপনি আমাদের এখান থেকে এই বিষয়টি জেনে নিতে পারবেন।

আপনি যদি এই বিষয়টি জানার জন্য আমাদের এখানে ভিজিট করে থাকেন তাহলে আমি বলব আপনি একদম সঠিক জায়গাটি নির্বাচন করেছেন। কারন আমরা প্রতিবছরে দেশের সকল জেলার সেহরির শেষ সময় সম্পর্কে জানিয়ে দেই তাই ২০২৩ সালের সকল জেলার সেহরির শেষ সময় সম্পর্কে ও রমজানের সময় সম্পর্কে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে আপনারা জেনে নিতে পারবেন। রোজা পালন করার ক্ষেত্রে আপনি যদি সেহরির শেষ সময় সম্পর্কে না জেনে থাকেন। তাহলে আপনি নির্দিষ্ট সময় সেহরি খেতে পারবেন না।

রমজান মাসের রোজা মূলত এমন একটি ইবাদত যেটা শুধু মোহাম্মদের উম্মতের উপর ফরজ ছিল না। এটা মূলত আগের নবী রাসূলদের ওপরও ফরজ করা হয়েছিল। তাই কুরআনের এক আয়াতে রোজা সম্পর্কে স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে হে ঈমানদারগণ! তোমাদের উপর রোজা ফরজ করা হয়েছে যেমন ফরজ করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের উপর। যাতে করে তোমরা এর মাধ্যমে তাকওয়া অবলম্বন করতে পারো। তাই রমজান মাসে রোজা পালন করা বিরাট সওয়াবের একটি কাজ।

মহান আল্লাহতালার কাছে দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের পরে যে ইবাদতটি অধিক পছন্দের তাহলো রোজা। আর আরবি মাসের মধ্যে সর্বোত্তম রমজান মাসের রোজা মহান আল্লাহতালার কাছে অধিক পছন্দের একটি ইবাদত। যেহেতু মহান আল্লাহতালার কাছে এই ইবাদত অধিক গুরুতে আমরা যখন রমজান মাসে রোজা পালন করব ইসলাম ধর্মের নিয়ম অনুসরণ করে রোজা পালন করব। সঠিক নিয়ম অনুসরণ করে রোজা পালন না করলে আমরা মহান আল্লাহ তালার কাছে গুনাহগার ব্যক্তি হিসেবে চিহ্নিত হবে।

আমাদের মধ্যে অনেক মুসলমান হয়েছেন যারা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সেহেরি সম্পন্ন করতে পারে না। তার একমাত্র কারণ হলো তাদের কাছে সেহেরী সময়সূচি না জানার কারণে। তাছাড়া আমরা অনেকেই জানিনা রমজান মাসের প্রতিদিনের সেহরির সময়সূচি পরিবর্তন হয়। তাই আপনি যদি রমজান মাসের রোজা পালন করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে আপনার কাঙ্খিত জেলার সেহরির শেষ সময় সম্পর্কে জানতে হবে। তাই আপনার যারা নারায়ণগঞ্জ জেলায় বসবাস করছেন ২০২৩ সালের সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি এখনো পাননি তারা আমাদের এখান থেকে তা জেনে নিন। এবং রমজানের সকল রোজা সঠিকভাবে পালন করুন।