সৌদি আরবের রোজার সময়সূচি ২০২৩

সৌদি আরব বিশ্বের বড় বড় মুসলিম দেশের মধ্যে একটি। এই সৌদি আরবে বিদেশ থেকে অনেক কর্মচারী তারা নিয়োগ দেন। এই কারণে সৌদি আরবে কাজের সূত্রে অনেক বৈদেশিক মানুষজন বসবাস করে থাকেন। সে সূত্র ে আমাদের বাংলাদেশি রাও সৌদি আরবে যে থাকে এবং তারা বিভিন্ন কার্যকর্মে সৌদি আরবের বসবাস করে থাকেন। সৌদি আরবের তারা অনেক নিষ্ঠা শহীদ কাজ করেন বিধায় বিশ্বে আমাদের বাংলাদেশের জনগণের একটি চাহিদা রয়েছে। আর সেই চাহিদার থেকেই সৌদি আরব প্রতিবছর বাংলাদেশ থেকে অনেক শ্রমজীবী মানুষকে তাদের দেশে কাজের জন্য চাকরি দেয়। সৌদি আরব একটি মুসলিম দেশ এবং বাংলাদেশের একই মুসলিম দেশ। বাংলাদেশের অধিকাংশ জনগণ মুসলিম হওয়ার কারণে এই মুসলিম জনগণ সৌদি আরবে যেতে একেবারে আগ্রহী থাকে। কারণ পৃথিবীর যে কোন দেশের মুসলিম কনে সৌদি আরবে যেতে আগ্রহী থাকে। সৌদি আরবে প্রতিবছর সারা বিশ্বের মুসলিম নাগরিকগণ হজ করার জন্য সৌদি আরবে এসে থাকেন।

কারণ মুসলমানদের ধর্মটি অর্থাৎ ইসলাম ধর্মটি পাঁচটি স্তম্ভের উপর দাঁড়িয়ে আছে। সেই পাঁচটি স্তম্বের একটি হল অবশ্যই হজ করা। অর্থাৎ সামর্থ্যবান মুসলমানদের জন্য আল্লাহ তা’আলা হজকে ফরজ করেছেন। আর এই হজ পালনের জন্যই প্রতিবছর সারা পৃথিবীর মুসলিম নাগরিকগণ অর্থাৎ বড় সংখ্যক মুসলিম নাগরিকগণ সৌদি আরবে এসে থাকেন। এবং প্রত্যেক মুসলমানের মনের মধ্যে একটি চিন্তা থেকে আসা থাকে যে তারা সৌদি আরবে একবার না একবার যাবেনই। আর সে কারণেই যদি কর্মসূত্রে সুযোগটা হয়ে যায় এই কারণে যে কেউ মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটিতে যেতে চায়।

এই কারণে বাংলাদেশের অনেক জনগণ সৌদি আরবে বসবাস করে থাকেন। কিন্তু সৌদি আরবে বসবাস করলেও তারা সৌদি আরবের স্থানীয় ভাষা সম্পর্কে অজ্ঞ। কারণ এ সকল শ্রমিক কর্মচারীগণ শুধুমাত্র বাংলা ভাষায় কথা বলতে থাকে পারে এবং বাংলা ভাষায় লিখিত সকল কাগজপত্র যারা দেখতে পারে। কিন্তু ২০২৩ সালের রমজান মাসের যে সেহরি এবং ইফতারের সময়সূচি প্রদান করা হয়েছে তা সৌদি আরবের নিজস্ব ভাষা আরবি ভাষায়।

আর বিপত্তিটা এখানেই। কারণ আমাদের শ্রমিক ভাইয়েরা বাংলা ভাষা সারা পৃথিবীর অন্য কোন ভাষায় লিখতে বা পড়তে জানে না এই কারণে আরবি ভাষায় প্রকাশিত তালিকাটি তাদের সমস্যার সৃষ্টি করছে। তাদের রমজান মাসের সিয়াম সাধনার বিষয়টি এখানেই ঝুলে আছে। তারা তাদের বাংলা ভাষায় তালিকাটি না পাওয়ার কারণে সমস্যা হচ্ছে এবং তাদের রোজা রাখা অনেকটা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

এই কারণে আমরা আমাদের এই পোস্টটি থেকে ২০২৩ সালের রমজান মাসের রোজা অর্থাৎ সৌদি আরবের রোজার সেহরি এবং ইফতারের সময়সূচি নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি। আমাদের এই সময়সূচির তালিকাটি বাংলা ভাষায় প্রকাশিত। এবং শুধু বাংলা ভাষায় প্রকাশিত তাই নয় একেবারে সৌদি আরবের স্থানীয় সময় অনুযায়ী তারা যে তালিকাটি প্রকাশ করেছেন সেই তালিকাটির থেকেই আমরা অনুবাদ করে আমাদের এই সৌদি আরবের বসবাসরত শ্রমিক ভাইদের জন্য দিচ্ছে।

 

সৌদি আরব জেদ্দা

সৌদি আরব দাম্মাম

সৌদি আরব রিয়াদ

সৌদি আরব মক্কা

কারণ এই তালিকাটি যদি তারা পায় এবং বুঝতে পারে তাহলে তারা অবশ্যই রোজা রাখতে পারবে এবং রমজান মাসের সিয়াম সাধনায় মগ্ন থাকতে পারবে। তাই বাংলা ভাষায় প্রকাশিত সৌদি আরবের নিজস্ব সময় অনুযায়ী প্রকাশিত এই তালিকাটি তারা চাইলে আমাদের এখান থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারবে। আমাদের এখান থেকে সেই তালিকাটি ডাউনলোড করে নিতে তাদের এক্সটা কোন সার্জারি প্রয়োজন হবে না। এই কারণে তারা যদি চায় তাহলে অবশ্যই প্রকাশিত এই তালিকাটি ডাউনলোড করে তাদের আশেপাশের সকল শ্রমিক ভাইদের দিয়েও দিতে পারবে।

এবং অন্যরা এই তালিকাটি পেলে অবশ্যই খুশি হবে এবং তাদের সিয়াম সাধনা চালিয়ে যেতে পারবে। তাহলে চলুন আজকে আমাদের এই পোস্টটি থেকে আপনারা সৌদি আরবের সময়সূচি অনুযায়ী 2023 সালের রমজান মাসের সেহরি এবং ইফতারের সময়সূচি তালিকাটি। অর্থাৎ ২০২৩ সালের সৌদি আরবের রোজার সময়সূচির তালিকা।