আজকের ইফতারের সময় লক্ষ্মীপুর 2023

লক্ষ্মীপুর জেলাতে ভারতের দক্ষিণ পূর্ব অঞ্চলের অবস্থিত এবং বাংলাদেশের চট্টগ্রাম বিভাগের অবস্থিত একটি জেলা শহর। এই শহরটি লক্ষ্মীপুর জেলার প্রধান এবং সবচেয়ে বড় শহর। এই শহরটি বাংলাদেশের বড় শহর হওয়ার কারণে এখানে মুসলিম জনগোষ্ঠী সংখ্যাও বেশি রয়েছে। রমজান মাসে প্রতিটি মুসলিম সমাজ এবং প্রতিটি মুসলিম জনগণ অবশ্যই রোজা রাখে।

রোজা সক্ষম মুসলমান ব্যক্তিদের জন্য অবশ্যই ফরজ বিষয়। আর এই খরচ থেকে কেউ যেন বিছানা হন সেদিকে আপনারা অবশ্যই লক্ষ্য রাখবেন। কারণ শুধুমাত্র ইহজগতি জগৎ নাই যেখানে আমাদেরকে স্থায়ীভাবে বসবাস করতে হবে সেদিকের দিকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। কারণ বর্তমান দুনিয়া অবশ্যই দুই দিনের দুনিয়া এখানে শুধু হাসি ঠাট্টা তামাশা করে গেলে পরকালের জন্য কিছুই অর্জিত হবে না। আমাদের উচিত হবে যেন আমরা পরকালের জন্য কাজ করি ইহ জগতে।

এখানে আল্লাহতালাকে যদি খুশি করতে পারি অর্থাৎ আমরা যেন সব সময় তাকে স্মরণ করে চলি তাহলে অবশ্যই আমাদের ইহজগতে কোন সমস্যা হবে না এবং পরজগতেও কিছু করা যাবে অর্থাৎ জান্নাত পাওয়া যাবে। আমরা জানি যে নামাজ হলো জান্নাতের চাবি। এই কারণে আমাদেরকে অবশ্যই পাঁচ ওয়াক্ত সালাত আদায় করতে হবে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য রোজা রাখতে হবে সমর্থ্য অনুযায়ী যাকাত দিতে হবে। অর্থাৎ ইসলামের যে মূল পাঁচটি স্তম্ভ রয়েছে সেই পাঁচটি স্তম্ভর প্রতিটি থেকে আমাদের অবশ্যই ঠিক রেখে ইহজগতে চলতে হবে। কখনো কোন মানুষকে আমরা যেন না ঠকাই সকল ধর্মের প্রতি অবশ্যই যেন শ্রদ্ধা করি এবং আমরা আল্লাহর বান্দাদের উপর অল্পতেই যেন রুহ ব্যবহার না করি।

অর্থাৎ আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে যেভাবে যে পথে যেতে বলেছেন আমরা যেন শেষ হবে সেই পথেই যাই। তারপরেও একটি বিষয় হল যেহেতু আমরা এই রমজান মাসের দিকে সবাই তাকিয়ে থাকি এ কারণে যে এই মাসটিতে আমরা সব সময় আল্লাহর কাছে দুহাত তুলে মোনাজাত করব তার সন্তুষ্টি লাভ করব। সব চাইতে পবিত্র মাসে যেহেতু আমাদের এই রমজান মাস তাই আমরা অবশ্যই এই রমজান মাসের প্রতিটি দিন রোজা রাখতে পারি আল্লাহ তা’আলা যেন আমাদের সেই তৌফিক দান করেন।

রোজা অবশ্যই আমাদেরকে রাখতে হবে এবং অন্য কেউ রোজা রাখার জন্য উৎসাহ দান করতে হবে অর্থাৎ যে সকল ব্যক্তি মুমিনগণ রোজা রাখেন না তাদেরকে আমাদের অবশ্যই রোজা রাখার জন্য অনুরোধ করতে হবে। মাহে রমজান মাসটি প্রতিটি মুসলমানের জন্য একটি পবিত্র মাস এবং এই মাসে আমাদের বাংলাদেশে সকল জনগণ ব্যস্ত থাকে ধর্মীয় কাজের পাশাপাশি অন্যান্য ইহজাগতিক যে সকল কাজ অর্থাৎ তার রোজগার অথবা রিজিকের বিষয়ে। কারণ হলো যেহেতু এই মাসটি জন্য বাংলাদেশের প্রত্যেকটি নাগরিক চেয়ে থাকেন কারণ অর্থনৈতিক একটি বিষয় রয়েছে। সব থেকে শুরু করে ব্যবসায়ী চাকরিজীবী সকলেই এই মাসের তাদের অর্থ প্রয়োজন কারণ হলো একমাস সিয়াম সাধনার পর আমরা অবশ্যই ঈদ উদযাপন করব। আর এই ঈদ উদযাপন কে ঘিরে অনেক অর্থনৈতিক কর্মকান্ড চলে আমাদের এই বাংলাদেশ। এ থেকে আমাদের লক্ষ্মীপুর জেলার মুমিন ভাই যেন পিছিয়ে নেই।

তাই আপনারা সকলেই ব্যস্ত থাকবেন এই কারণে ইফতারের এবং সেহরির সময়সূচী আপনারা আগে থেকে জানলেও হয়তো মনে নাই এবং হাতের কাছে যে তালিকাটি থাকবে সেটি না থাকলেও আপনাদের কোন সমস্যা নাই। কারণ আপনারা যদি আমাদের ওয়েবসাইটটি ভিজিট করেন তাহলে অবশ্যই আপনারা প্রতিদিনের ইফতারের এবং সেহরির দুটোর সময়সূচী আমাদের এখান থেকে পেয়ে যাবেন। আজকে আপনারা আমাদের এই পোস্টে আজকের ইফতারের অর্থাৎ লক্ষ্মীপুর জেলার স্থানীয় সময় অনুযায়ী ইফতারের সময়সূচি দেখতে এসেছেন।

তাহলে আপনারা অবশ্যই এই সময়সূচিটি এখন দেখে নিতে পারেন। ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ কর্তৃক প্রকাশিত লক্ষীপুর জেলার স্থানীয় সময় অনুযায়ী আজকের ইফতারের সময়সূচি তালিকাটি দেখে নিন তাহলে। নিজে দেখুন এবং প্রয়োজনে আপনার আশেপাশের সকলকে এই তালিকাটি দেখান এবং আপনার আত্মীয়-স্বজনকে দেন। তাহলে এখন আপনাদের সামনে সেই তালিকাটি উপস্থাপন করছি।