http এর পূর্ণরূপ কি?

আজকে আমরা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আপনাদের সামনে উপস্থিত হয়েছি। আপনারা অনেকেই হয়তো ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। ইন্টারনেট ব্যবহার করার সময় ইন্টারনেট ব্রাউজিংয়ের ক্ষেত্রে যখন আপনি একটি ওয়েবসাইটের নাম আপনার ইন্টারনেট ব্রাউজারে ওপেন করবেন।

তখন আপনি হয়তো খেয়াল করেছেন কিনা শুরুতেই একটি শব্দ রয়েছে যে শব্দটি এইচটিটিপি। HTTP শব্দটি যদি আপনি আপনার ইন্টারনেট ব্রাউজার এর শুরুতে না লাগিয়ে থাকেন। তাহলে আপনি কোনভাবেই সেই ওয়েবসাইটে ব্রাউজ করতে পারবেন না।

অর্থাৎ সেই ওয়েবসাইটে আপনি ঢুকতে পারবেন না। আপনাকে ইন্টারনেটে ঢুকতে হলে বা যে কোন ওয়েবসাইটে ঢুকতে হলে আপনাকে http শব্দটি ইনক্লুড করতে হবে। আজকে আমরা এই এইচটিটিপি। এর প্রয়োজনীয় এবং গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য জেনে নিব। আজকে আমরা HTTP এর পূর্ণরূপ জেনে নিব। এর পূর্ণরূপ সম্পর্কে অনেকেই হয়তো জানেন না। কিন্তু আপনারা ইন্টারনেট ব্রাউজিং করেন। ইন্টারনেট ব্রাউজের ক্ষেত্রে এটি প্রত্যেককেই জেনে নিতে হবে।

আপনারা যদি সঠিক তথ্যটি না জেনে থাকেন। তাহলে আমাদের আজকের প্রবন্ধ হতে তো সঠিক তথ্য গুলো জেনে নিন। সঠিক তথ্য সকলেরই জেনে নেওয়া প্রয়োজন। আপনি যদি সঠিক তথ্য না জেনে থাকেন। তাহলে আপনি হয়তো ভুল তথ্য জানেন। যার কারণে আপনি সঠিকভাবে ইন্টারনেট ব্রাউজিং করতে পারেন না। সঠিক ইন্টারনেট ব্রাউজিং করতে হলে এ সকল গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো প্রত্যেককেই জেনে নিতে হবে।

 

এইচটিটিপি HTTP এর পূর্ণরূপ:- হাই পারটেক্সট ট্রান্সফার প্রোটোকল/hypertext transfer protocol

 

এইচটিটিপি এর পূর্ণরূপ কি?

এটি একটি ইন্টারনেট প্রোটোকল। যার প্রধান কাজ হল ইন্টারনেটের ডাটাকে আদান প্রদান করা। ইন্টারনেটের সকল ডাটা কে এই প্রটোকল দ্বারা আদান প্রদান করা হয়। এই প্রটোকলটিতে বেশ কিছু নিয়ম রয়েছে। যার উপর ভিত্তি করে কোন ওয়েব ব্রাউজার এবং সার্ভার এর মধ্যে সকল তথ্য আদান প্রদান করে। আপনি যখন কোন তথ্য ইন্টারনেটের মধ্যে সংযুক্ত করবেন। তখন এই প্রটোকলের মাধ্যমে ইন্টারনেট সে সকল তথ্যগুলো এক জায়গায় থেকে আরেক জায়গায় পৌঁছে দিবে।

আপনি যদি এ সকল প্রটোকল ব্যবহার না করেন। তাহলে আপনি কোনভাবে কোন তথ্য এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় পৌঁছাতে পারবেন না বা আপনি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে বিলম্বিত হবেন। অনেকেই এ সকল বিষয়গুলো জানেন না। যারা এই সকল বিষয়গুলো জানেন না তাদের জন্যই আমাদের আজকের প্রবন্ধটি সাজানো হয়েছে।

এই প্রটোকলটি সর্বপ্রথম ১৯৮৯ সালে টিম বার্নার্স লি আবিষ্কার করেন। টিম বার্নারসলি মূলত একজন পদার্থবিদ্যা ও কম্পিউটার বিজ্ঞানী। তার হাত ধরেই HTTP এর সকল কার্যক্রম চালু হয়েছে। পরবর্তীতে 1997 সালে এইচটিটিপি এক এবং ২০১৫ সালে এটিপি ২ এবং http তিন এর কাজ সংস্কার করা হয়। এই তিনটি প্রটোকল বর্তমানে ইন্টারনেটের সকল কার্যক্রম সম্পাদনা করে।

পরিশেষে আমাদের সকল পাঠকের উদ্দেশ্যে বলতে চাই যে, আপনারা প্রতিনিয়ত যদি এ সকল তথ্যগুলো আমাদের কাছে পেতে চান। তাহলে আমাদের প্রবন্ধ গুলো আপনাকে পড়তে হবে। আমরা যে সকল তথ্যগুলো উপস্থাপন করব। সেগুলো অবশ্যই শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে।